মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

মন্দির

ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়নে বৈঞ্চব ধর্মের প্রবর্তক শ্রী চৈতন্য দেব’র পৈতৃক বাড়ি ও তৎসংলগ্ন মন্দির ছাড়াও আরো অনেকগুলো মন্দির আছে। যেমন কানিশাইল গ্রামে অবস্থিত গোপেশ্বর শিববাড়ী । এটি একটি প্রাচীন মন্দির্ । নিচে এগুলোর বিবরণ দেওয়া হল।

 

শ্রী চৈতন্য দেবের বাড়ী

কিভাবে যাওয়া যায়: 
সিলেট কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল অথবা রেলস্টেশন থেকে বাসে কিংবা সিএনজি চালিত অটোরিক্সায় করে সিলেট-জকিগঞ্জ রোড হয়ে দেওয়ান রোডে ৪৫ মিনিট সময়ে ঢাকাদক্ষিণ চৌমুহনীতে যেতে হয় অথবা সরাসরি ২০০ মিটার দূরবর্তী শ্রী চৈতন্য দেব’র বাড়ী যা স্থানীয়ভাবে ঠাকুরবাড়ী নামে পরিচিত যাওয়া যায়।

বৈঞ্চব ধর্মের প্রবর্তক শ্রী চৈতন্য দেব’র পৈতৃক নিবাস গোলাপগঞ্জ উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়নের দত্তরাইল গ্রামে অবস্থিত। নবদ্বীপে জন্মগ্রহণকারী শ্রী চৈতন্য (যিনি নিমাই সন্নাসী নামেও পরিচিত) দেব প্রায় সাড়ে পাঁচশত বছর পূর্বের চৈত্র মাসের প্রথম রবিবারে ঢাকাদক্ষিণ নিজ পৈতৃক বাড়ীতে এসেছিলেন বলে ধারণা করা হয়।

তাঁর এই আগমনকে স্মরণীয় রাখতে প্রতিবছর চৈত্র মাসের রবিবার থেকে মাসব্যাপী মেলা ও ধর্মীয় উৎসব পালন করা হয়। স্থানীয়ভাবে এই মেলাটি বারণী নামে পরিচিত।

শ্রী চৈতন্যের স্মৃতি বিজড়িত এই ঠাকুরবাড়ী সমগ্র ভারতীয় উপমহাদেশের সনাতন ধর্মাবলম্বীদের কাছে অত্যন্ত পূজনীয়। প্রতিবছর দুর্গাপূজা, স্বরসতী পূজা, রথযাত্রা প্রভৃতি ধর্মীয় উৎসবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা ছুটে ভক্তির টানে কিংবা প্রাণের আবেগে।

দর্শণার্থীদের রাতযাপনের জন্য রয়েছে কয়েকশত মিটার দূরে জেলা পরিষদের মালিকানাধীন ডাক বাংলো।

অবস্থান: 
মিশ্রপাড়া, দত্তরাইল, ঢাকাদক্ষিণ

ছবি